লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক কি? LAN কি?

Wizstudy Network Series
Q n A 
Topic: LAN 
By:Hossain Rahat


লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক



local-area-network-lan-wizstudy.blogspot.com

লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক 


কম্পিউটার নেটওয়ার্কের কথা বলতে গেলে সবথেকে বেশী যে টার্মটির নাম আসে সেটা হচ্ছে লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক (Local Area Network) বা  LAN। এর ব্যবহারও অনেক।


উপরের ছবিটিতে আপনি যে ধরনের নেটওয়ার্কিং দেখতে পাচ্ছেন সচরাচর এ ধরনের ল্যান তৈরী করা হয়না।

ল্যান তৈরী করা হয় আরও ছোট পরিসরে। কোন অফিসের ভেতর। বা সুউচ্চ বিল্ডিংয়ের এক তলা থেকে অন্য তলায়। 

আমি আপনাদেরকে পরিপূর্ণ ধারনা দেয়ার জন্যই ছবিটি ব্যবহার করেছি কেবল। বিস্তারিত সামনে আলোচনা করছি। 

ক্লিয়ার কনসেপ্ট পেতে অবশ্যই পুরো লেখাটি পড়বেন। 



আমরা জানি লোকাল শব্দটির অর্থ হচ্ছে স্থানীয়। স্বাভাবিকভাবে কোনো একটি স্থানের কিছু ইলেকট্রনিক ডিভাইসকে একত্রিত করে গড়ে ওঠা নেটওয়ার্ককেই আমরা লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক বলতে পারি।


এই ইলেকট্রনিক ডিভাইসগুলো হতে পারে কিছু কম্পিউটার, কিছু মোবাইলফোন, কিছু প্রিন্টার ইত্যাদি ইত্যাদি। 


পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্কে আমরা দেখি যে, শুধুমাত্র একজন কিংবা দুজন সেটা ব্যবহার করতে পারেন। 


কিন্তু লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্কের বিস্তৃতি আরো ব্যাপক। নিচে আরো বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। 


সংজ্ঞা : একাধিক ব্যক্তির কাজের সমন্বয় সাধন ও গতি বৃদ্ধির জন্য একই ভবনের এক তলা থেকে অন্য তলায় , পাশাপাশি ভবনে কিংবা একই এলাকার কম্পিউটারগুলাের মধ্যে সংযােগ স্থাপন করাকে বলা হয় স্থানীয় অঞ্চলের নেটওয়ার্ক বা লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক (Local Area Network) সংক্ষেপে LAN। 


এটি একক নেটওয়ার্ক।

সাধারণত ছোট বা মাঝারি অফিসের কম্পিউটার, প্রিন্টার, মডেম, স্ক্যানার ইত্যাদি ডিভাইসের মধ্যে সংযোগ স্থাপনের মাধ্যমে এই নেটওয়ার্ক তৈরী করা হয়। 


নির্দিষ্ট একটি জায়গা কেন্দ্র করে LAN তৈরী করা হয় বলেই একে স্থানীয় বা লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক বলা হয়। 


ল্যানের বিস্তৃতি প্রাইভেট এরিয়া নেটওয়ার্ক (PAN) থেকে বড় হলেও ক্যাম্পাস এরিয়া নেটওয়ার্ক (CAN),  এবং ওয়াইড এরিয়া নেটওয়ার্ক (WAN) এর তুলনায় সীমিত।


❗আরও পড়ুন : 



ল্যান  সাধারণত এক বিল্ডিং এর এক তলার ভেতর বা এক তলা থেকে অন্য তলা কিংবা স্বল্প দূরত্বে অবস্থিত কয়েকটি বিল্ডিং এর মধ্যে সীমাবদ্ধ হয়।


তবে রিপিটার ব্যবহার করে ল্যানের বিস্তৃতি সর্বোচ্চ ১ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ানো যায়। 


এই নেটওয়ার্ক তৈরীর জন্য ট্রান্সমিশন মিডিয়া হিসেবে  টুইস্টেড পেয়ার ক্যাবল, কো-এক্সিয়াল ক্যাবল, অপটিকাল ফাইবার ক্যাবলরেডিও ওয়েভ ইত্যাদি ব্যবহার করা হয়।


ট্রান্সমিশন মিডিয়া বলতে কম্পিউটারগুলোকে সংযোগ করে নেটওয়ার্ক তৈরীর জন্য যেসব ক্যাবল/পদ্ধতি ব্যবহার করা হয় তাকেই বোঝানো হয়েছে।


বর্তমানে ল্যান ব্যবহারের মাধ্যমে সেকেন্ডে সর্বোচ্চ ১ জিবি পর্যন্ত গতিতে তথ্য আদানপ্রদান করা যায়। 

তবে এর সাধারণ গতি 10Mbps থেকে 100Mbps পর্যন্ত হয়। 

এক নজরে লােকাল এরিয়া নেটওয়ার্কের 

সুবিধা/বৈশিষ্ট্যগুলো:


  • ১.এই নেটওয়ার্ক ছোট এলাকার মধ্যে সহজেই তৈরী করা যায়। যেমন একটি স্কুল ভবনের মধ্যে বা স্কুলের প্রাইমারি ভবনের ও হাই স্কুল ভবনের মধ্যে।

  • ৩.বিভিন্ন অফিসের কাজে নেটওয়ার্ক তৈরীর জন্য ল্যান সবথেকে ভালো সমাধান।

  • ৩.নেটওয়ার্ক  স্থাপন এবং রক্ষণাবেক্ষণ সহজ, খুব বেশী ব্যয়বহুলও নয়।

  • ৪.ল্যান অত্যন্ত উচ্চগতিসম্পন্ন হয় , সাধারণত প্রতি সেকেন্ডে ১০ এমবিপিএস গতি পাওয়া যায়।

  • ৫.এই নেটওয়ার্কে  অনেক ডিভাইসে অ্যাকসেস পাওয়া যায়


Post a Comment

Previous Post Next Post