পার্সোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক (প্যান/PAN) কি? এর বৈশিষ্ট্য, সুবিধা ও অসুবিধা

personal-area-network-wizstudy.blogspot.com
পার্সোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক (প্যান/PAN) কি? এর বৈশিষ্ট্য, সুবিধা ও অসুবিধা
পার্সোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক


পার্সোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক (প্যান/PAN) কি? এর বৈশিষ্ট্য, সুবিধা ও অসুবিধা


আমাদের আজকের আইসিটি অংশের আলোচ্য বিষয় হচ্ছে পার্সোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক বা প্যান(PAN)। ভালোভাবে বোঝার জন্য অবশ্যই পুরো লেখাটি মনোযোগ দিয়ে পড়বে। কোথাও কোনো কিছু বুঝতে অসুবিধা হলে নির্দিধায় নিচের কমেন্ট বক্সে জানাবে অথবা নিচে ডানপাশে থাকা মেসেঞ্জার বাটনটাতে ক্লিক করে টুক করে তোমার প্রশ্নটি জানিয়ে দেবে আমাদেরকে। আমরা খুব দ্রুত তোমার সমস্যার সমাধান করে দেবো।

পার্সোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক কি?


তোমরা যারা ৬ষ্ঠ থেকে ইন্টারমিডিয়েট লেভেলে আছো, আইসিটি বইটি পড়ার সময় তোমরা কখনো না কখনো প্যান(PAN) বলে একটা শব্দ শুনে বা দেখে থাকবে। এটা আসলে অন্য কিছু নয় এটাই পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক। অর্থাৎ PAN এর পূর্ণরূপ  হচ্ছে Personal Area Network। নাম থেকেই বুঝতে পারছো এটি 'ব্যক্তিগত এলাকা নেটওয়ার্ক'। একদম তাই। 

এটি এমন এক ধরনের কম্পিউটার নেটওয়ার্ক যা আমাদের পার্সোনাল বা ব্যক্তিগত ডিভাইসসমূহ, যেমনঃ কম্পিউটার, ল্যাপটপ, মোবাইল, ওয়াফাই রাউটার ইত্যাদির মধ্যে যোগাযোগ স্থাপনের জন্য তৈরী করা হয়। এই ধরনের নেটওয়ার্ক সাধারণত ১০ মিটার বা এর থেকে কিছুটা বড় এরিয়ার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে।

এই যা! তোমাদেরকে পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক বোঝাচ্ছি অথচ জানাই হয়নি তোমরা 'কম্পিউটার নেটওয়ার্ক' সম্পর্কে ভালোভাবে জেনেছো কিনা। যদি অলরেডি জেনে থাকো তাহলে তো কুডোসস। আর যদি না জানো তাহলে তোমাদের জন্য আমার কাছে খুব চমৎকার একটি লেখা রয়েছে। টুক করে গিয়ে লেখাটি পড়ে এসো। লেখাটি পড়ার পর কম্পিউটার নেটওয়ার্ক টার্মটি তোমার কাছে পানির মতো সোজা হয়ে যাবে। আর তখন এই 'PAN' এর প্যানপ্যানানিও একদম চিনির মতো মিষ্টি মনে হবে।



চলো এবার মূল আলোচনায় যাওয়া যাক।

পার্সোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক কাকে বলে?


সংজ্ঞা: আমাদের  দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহৃত ব্যক্তিগত বিভিন্ন ইলেকট্রিক ডিভাইস  যেমন: কম্পিউটার, ল্যাপটপ, মােবাইল, ডিজিটাল ক্যামেরা, ওয়েব ক্যামেরা, সাউন্ড সিস্টেম, PDA, বহনযােগ্য প্রিন্টার, স্ক্যানার ইত্যাদির মধ্যে সংযোগ স্থাপন করে একজনের ব্যবহার উপযোগী যে নেটওয়ার্ক গড়ে তোলা হয় তাকেই পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক (Personal Area Network) বলা হয়। একে সংক্ষেপে প্যান(PAN) বলা হয়।


কিভাবে পার্সোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক তৈরী করা হয়?


প্যান এক ধরনের একক নেটওয়ার্ক। সাধারণত Wi-Fi এর মাধ্যমে একটি বাড়ি/রুমের ভেতর  এই নেটওয়ার্ক স্থাপন করা হয়। একজনের জন্য বানানো হয় বলেই একে ব্যক্তিগত বা পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক বলা হয়। এই ধরনের নেটওয়ার্ক সাধারণত 10 meter কিংবা এর থেকে সামান্য বেশী  পরিসরের মধ্যে সীমাবদ্ধ হয়। 

এই নেটওয়ার্ক তৈরীর জন্য  ট্রান্সমিশন মিডিয়া হিসেবে ওয়্যারলেস মিডিয়াম (Wareless Medium), যেমন : ওয়াইফাই (Wi-Fi), ব্লুটুথ(Bluetooth), ইউএসবি(USB), ফায়ারওয়্যার বাস (Fireware Bus) ইত্যাদি ব্যবহার করা হয়। এই নেটওয়ার্কে ডেটা আদানপ্রদানের গতি সাধারণত 0Mbps থেকে 10 Mbps পর্যন্ত হতে পারে।

পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক তারযুক্ত এবং তারবিহীন দুইভাবেই তৈরী করা যায়। তারবিহীন হলে তাকে বলে ওয়্যারলেস পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক - Wireless Personal Area Network বা WPAN । ব্লুটুথ এবং ওয়াফাই (Wi-Fi)দ্বারা তৈরী নেটওয়ার্ক WPAN এর বেশ ভালো উদাহরণ। 

আশা করি প্যান কি মোটামুটি বুঝে গেছো। এখন কিছু সহজ উদাহরণ দেয়া যাক -


পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক এর উদাহরণঃ


তুমি কি লক্ষ্য করেছো তুমি যখন ল্যাপটপ ব্যবহার করো তখন তোমার  ল্যাপটপটি বাসার  রাউটারের সাথে কানেক্টেড থাকে? এছাড়া তোমার ল্যাপটপের সাথে প্রিন্টার, এক্সটার্নাল হার্ডড্রাইভ সহ আরো ছোটখাটো ডিভাইসও লাগানো থাকতে পারে। এই যে তুমি তোমার  ব্যক্তিগত ডিভাইসগুলোকে একসাথে যুক্ত করে এদের মধ্যে একটা সংযোগ তৈরী করেছো এটাই পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক বা PAN

আবার বাড়িতে নিজের মোবাইল থেকে মন চাইলো, একটা পিডিএফ ফাইল প্রিন্টার দিয়ে প্রিন্ট করে বই বানিয়ে ফেললে, এক্ষেত্রে তোমার মোবাইলের সাথে প্রিন্টারের যে সংযোগ তাই তোমার ব্যক্তিগত এরিয়া নেটওয়ার্ক বা PAN। এছাড়া ব্লুটুথের মাধ্যমে দুটি মোবাইল ফোনের মধ্যে কোনো কিছু আদান প্রদানের সময় যে নেটওয়ার্ক তৈরী হয় তাও প্যান(PAN) এর উদাহরণ।


পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক এর বৈশিষ্ট্যগুলো কি?


  • এটি একক নেটওয়ার্ক
  • ব্যক্তিগত ছোট/বড় ডিভাইসগুলো যেমনঃ কম্পিউটার, ল্যাপটপ, মোবাইল, প্রিন্টার ইত্যাদির মধ্যে যোগাযোগ স্থাপনের জন্য এই নেটওয়ার্ক তৈরী করা হয়।
  • তারযুক্ত এবং তারবিহীন দুইভাবেই এই নেটওয়ার্ক তৈরী করা যায়।
  • এর ব্যাপ্তি সাধারণত ১০ মিটার এর মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে। তবে এর থেকে কিছুটা বড় এলাকাতেও এই নেটওয়ার্ক তৈরী করা যায়।
  • এই ধরনের নেটওয়ার্ক তৈরী করতে ওয়্যারলেস মিডিয়াম যেমনঃ Wi-Fi, Bluetooth, USB, Firewire Bus ইত্যাদি ব্যবহার করা হয়।
  • এই নেটওয়ার্কে ডেটা আদানপ্রদানের গতি সাধারণত 0Mbps থেকে 10Mbps এর মধ্যে হয়

পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক এর সুবিধা কি কি?


  • বাড়িতে কিংবা অফিসে ব্যক্তিগত ছোটখাটো প্রয়োজনে পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্কের জুড়ি নেই।
  • ব্যক্তিগত বিভিন্ন ডিভাইসসমূহের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপনে এই নেটওয়ার্কের ব্যবহার অনস্বীকার্য।
  • এই নেটওয়ার্ক কম ঝামেলায় সহজেই যেকোন জায়গায় তৈরী করা যায়।
  • অন্য নেটওয়ার্কের তুলনায় খরচ অনেক কম।
  • কোনো ধরনের ঝামেলা ছাড়াই যেকোন জায়গায় খুব সহজে এই নেটওয়ার্ক তৈরী করা যায়।
  • দ্রুত তথ্য আদান প্রদানে প্যান বেশ সহায়ক।
  • এই নেটওয়ার্কে নয়েজ এর প্রভাব পড়েনা।
  • অতি অল্প দূরত্বে এই নেটওয়ার্ক তৈরী করা যায়।

পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক এর অসুবিধা কি কি?


  • একজনের উপযোগী হওয়ায় অনেকে ব্যবহার করতে পারেনা।
  • নেটওয়ার্ক এর ব্যাপ্তি খুবই কম।
  • এই নেটওয়ার্কে ডাটা আদান প্রদানের গতি অন্যান্য নেটওয়ার্কের তুলনায় অনেক কম।


তো এই ছিলো আমার পার্সোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক বা PAN এর আলোচনা। আর্টিকেলটিতে আলোচিত প্রতিটি বিষয় তুমি বুঝতে পেরেছো কিনা, তা নিচের কমেন্ট বক্সে জানাতে ভুলবেনা কিন্তু। 

এছাড়া আমাদের কাছে তুমি চাইলে তোমার মস্তিষ্কের আনাচে কানাচে ঘুরে বেড়ানো উত্তর না জানা প্রশ্নটিও করতে পারো কিংবা জানাতে পারো কোনো আর্টিকেল রিকোয়েস্ট। আমরা তোমার প্রশ্নটির উত্তর দিয়ে একটি আর্টিকেল লেখার চেষ্টা করবো। লেখা শেষে আর্টিকেলটি পৌছে যাবে তোমার ফেইসবুকের ইনবক্সে অথবা ব্যক্তিগত ইমেইল এর ইনবক্সে।

মনে রাখিঃ PAN এর পূর্ণরূপ Personal Area Network
মনে রাখিঃ WPAN এর পূর্ণরূপ Wireless Personal Area Network

আরও পড়োঃ
পাবলিক নেটওয়ার্ক কি? 
প্রাইভেট নেটওয়ার্ক কি?

1 Comments

Previous Post Next Post