টার্মিনাল কি? কম্পিউটার টার্মিনাল কত প্রকার ও কি কি? বিস্তারিত - what is computer terminal? | wizstudy


কম্পিউটার টার্মিনাল 

Computer Terminal


কম্পিউটার টার্মিনাল শব্দটির সাথে পরিচিতি সাধারণ মানুষের খুব কমই আছে।


আজকে আমি আপনাকে টার্মিনাল সম্পর্কে বিস্তারিত জানাবো ইন শা আল্লাহ। অবশ্যই আর্টিকেলটি পুরো পড়বেন। তা না হলে সবকিছু ক্লিয়ারলি বুঝতে পারবেন না। 


টার্মিনাল কি


আপনি যদি টার্মিনাল কি লিখে গুগলে সার্চ করেন তাহলে অসংখ্য উত্তর মুহুর্তেই পেয়ে যাবেন। কিন্তু তার অধিকাংশই আপনি বুঝতে পারবেন না। আপনি যেহেতু শিখতে এসেছেন আমি আপনাকে বোর করবোনা।


আমরা যদি সহজভাবে চিন্তা করি টার্মিনাল আসলে কিচ্ছু নয় শুধু একটি মনিটর(ডিসপ্লে স্ক্রিন) এবং একটি কিবোর্ড কে একসাথে করে তৈরী করা একটি যন্ত্র। এই যন্ত্রটি দেখতে কিছুটা কম্পিউটারের মতো লাগে।কিন্তু এটি কম্পিউটার নয়।


এটি কম্পিউটার পরিচালনার জন্য একটি সহায়ক হার্ডওয়্যার।


এই যন্ত্রটিকে কম্পিউটারে সংযুক্ত করে এতে বিভিন্ন কমান্ড  লিখে লিখে কম্পিউটার চালানো যায়। অর্থাৎ এর মাধ্যমে আপনি একটি কম্পিউটারকে বিভিন্ন নির্দেশ দিতে পারবেন।


যেমন কোনো একটি ফাইল কপি করার প্রয়োজন হলে কম্পিউটারের মাউস কিবোর্ড ব্যবহার না করে টার্মিনাল থেকে কমান্ড লিখে আপনি কাজটি করতে পারবেন।


আর যদি আরো স্ট্রংলি টার্মিনালের সংজ্ঞা দিতে যাই তাহলে বলা যায় 

কম্পিউটার টার্মিনাল হচ্ছে এমন একটি একটি ইলেকট্রনিক বা ইলেক্ট্রোমেকানিক্যাল হার্ডওয়্যার ডিভাইস যার মাধ্যমে কম্পিউটারে ডাটা প্রবেশ করানো যায় এবং একটি কম্পিউটার বা একটি কম্পিউটিং সিস্টেম থেকে ডাটা প্রদর্শন করা যায়।


একটি কম্পিউটারকে আমরা সাধারনত দুইভাবে চালাতে পারি। প্রথমত গ্রাফিকাল ইউজার ইন্টারফেস (GUI) থেকে দ্বিতীয়ত টার্মিনালের মাধ্যমে।


গ্রাফিকাল ইউজার ইন্টারফেস মানে হচ্ছে এমন একটি প্রক্রিয়া যেখানে আপনাকে কম্পিউটার প্রোগ্রাম লিখতে হবেনা বরং বিভিন্ন ছবি,আইকন, লেখা ইত্যাদি দেখে দেখে কাজ করতে পারবেন আপনাকে কষ্ট করে কোড লিখতে হবেনা। মানে স্বাভাবিকভাবে আমরা যেভাবে কম্পিউটার ব্যবহার করি।


কিন্তু টার্মিনাল হচ্ছে এর ঠিক উলটো। এখানে আপনাকে টার্মিনালের কিবোর্ডে কমান্ড লিখে লিখে কাজ করতে হবে। 


যেমন : আপনি যদি আপনার কম্পিউটারে  "Hossain" নামে নতুন একটি ফোল্ডার  খুলতে চান তাহলে আপনি খুব সহজেই পিসিতে কোনো একটি ড্রাইভে গিয়ে কোথাও মাউসের রাইট বাটনে ক্লিক করে নিউ ফোল্ডারে ক্লিক করবেন। তারপর "Hossain" লিখে এন্টার প্রেস করলেই আপনার ফোল্ডারটি তৈরী হয়ে গেলো।


কিন্তু টার্মিনাল থেকে যদি আপনি আপনার কম্পিউটারে "Hossain" নামক ফোল্ডারটি তৈরী করতে চান তাহলে আপনাকে প্রথমে আপনার টার্মিনালটি অন করতে হবে এবং কমান্ড লিখতে হবে

 cd ~/Documents; mkdir Hossain.


এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে সবাই তো কম্পিউটারের গ্রাফিকাল ইউজার ইন্টারফেস থেকেই কম্পিউটার ব্যবহার করে এবং সেটাই সহজ। কেননা সবাই তো আর প্রোগ্রাম লিখতে বা কমান্ড দিতে জানেনা। তাহলে শুধু শুধু কেনো টার্মিনাল ব্যবহার করতে যাবো।


এখানেও কথা আছে ভাই। টার্মিনাল কেউ এমনি এমনি ব্যবহার করেননা। টার্মিনাল ব্যবহারের পেছনেও বেশ কিছু কারণ রয়েছে। টার্মিনালের অনেক ব্যবহার রয়েছে তবে যেহেতু আমাদের কম্পিউটার  নেটওয়ার্ক সিরিজ চলছে এক্ষেত্রে এর ব্যবহারটাই বলি।


নেটওয়ার্কিংয়ের ক্ষেত্রে যখন একটি কম্পিউটারে অনেকের একসাথে কাজ করার প্রয়োজন হয় তখন আমাদের টার্মিনালের দরকার পড়ে। একটি বড় কম্পিউটারে অনেকগুলো টার্মিনাল যুক্ত করা যায়।


মেইনফ্রেম কম্পিউটারে টার্মিনাল সংযুক্ত করার মাধ্যমে একসাথে অনেক ব্যবহারকারী কাজ করতে পারে। অনেক বড় বড় কোম্পানীতে মেইনফ্রেম কম্পিউটার এবং টার্মিনাল ব্যবহার করে কাজ করা হয়। 



আপনি যদি আরো কিছু সুন্দর সুন্দর টার্মিনালের ছবি দেখতে চান তাহলে এই লিংটি থেকে দেখে আসতে পারেন

Computer terminal images



Post a Comment

Previous Post Next Post