বাংলা ব্যাকরণ কত প্রকার ও কি কি?

বাংলা ব্যাকরণ কত প্রকার ও কি কি

বাংলা ব্যাকরণ কত প্রকার ও কি কি, বাংলা ব্যাকরণ কত প্রকার
Article: বাংলা ব্যাকরণ কত প্রকার ও কি কি

বাংলা ব্যাকরণের প্রকারভেদ নিয়ে আলোচনা করতে গেলে দেখা যায়, এই ব্যাপারটি নিয়ে আমাদের দুইজন গুণী এবং জনপ্রিয় ব্যাকরণবিদ ভিন্ন মত দিয়েছিলেন। ড. মূহাম্মদ এনামুল হক বলেছেন- বাংলা ব্যাকরণ তিন প্রকার। এই তিন  প্রকার হলো- 

১) ঐতিহাসিক ব্যাকরণ 
২) তুলনামূলক ব্যাকরণ 
৩) ব্যবহারিক ব্যাকরণ   

অন্যদিকে ব্যাকরণের বিভিন্ন বৈশিষ্টের পরিপ্রেক্ষিতে ড. সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায় ব্যাকরণকে চারভাগে ভাগ করেছেন। এই চার প্রকার হলো-

১) বর্ণনাত্মক ব্যাকরণ
২) ঐতিহাসিক ব্যাকরণ
৩) তুলনামূলক ব্যাকরণ
৪) দার্শনিক-বিচারমূলক ব্যাকরণ

পরবর্তীতে বিশেষজ্ঞরা ড. সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়ের মতামতকেই গ্রহণ করেছেন। এই আলোচনার ভিত্তিতে বাংলা ব্যাকরণের প্রকারভেদ নিয়ে নিচে বিস্তারিত দেয়া হলো।

বাংলা ব্যাকরণ কত প্রকার?

বাংলা ব্যাকরণ ৪ প্রকার। যথাঃ

১. বর্ণনাত্মক ব্যাকরণ (Descriptive Grammar)
২. ঐতিহাসিক ব্যাকরণ (Historical Grammar)
৩. তুলনামূলক ব্যাকরণ (Comparative Grammar)
৪. দার্শনিক-বিচারমূলক ব্যাকরণ (Philosophical Grammar)

ব্যাকরণের প্রকারভেদগুলোর বিস্তারিত

 বর্ণনাত্মক ব্যাকরণ (Descriptive Grammar)

বিশেষ কোনো কালের কোনো একটি ভাষার রীতি ও প্রয়োগ বর্ণনা করা এর বিষয় এবং সে বিশেষ কালের ভাষা যথাযথ ব্যবহার করতে সাহায্য করা এর উদ্দেশ্য। সংজ্ঞা

ঐতিহাসিক ব্যাকরণ (Historical Grammar)

একটি ভাষার উৎপত্তি থেকে বর্তমানকাল পর্যন্ত সেই ভাষার ক্রমবিকাশের ইতিহাস পর্যালোচনা করা এর লক্ষ্য।

তুলনামূলক ব্যাকরণ (Comparative Grammar)

যে শ্রেণীর ব্যাকরণে কোনো বিশেষ কালের বিভিন্ন ভাষার গঠন, প্রয়োগরীতি ইত্যাদির তুলনামূলক আলোচনা করে থাকে, তা-ই তুলনামূলক ব্যাকরণ।

 দার্শনিক-বিচারমূলক ব্যাকরণ (Philosophical Grammar)

ভাষায় অন্তর্নিহিত চিন্তা প্রণালিটি আবিষ্কার ও অবলম্বন করে সাধারণভাবে কিংবা বিশেষভাবে ভাষার রূপের উৎপত্তি ও বিবর্তন কীভাবে ঘটে থাকে, তার বিচার করা এর পর্যায়ভুক্ত।

Wizstudy Suggested: 


Post a Comment

Previous Post Next Post